মঙ্গলবার, ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ২৪ মাঘ, ১৪২৯ | ১৫ রজব, ১৪৪৪

মূলপাতা আঞ্চলিক রাজনীতি

কাদের মির্জার গ্রেপ্তারের দাবিতে নোয়াখালীতে হেফাজতের বিক্ষোভ


রাজনীতি সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশের সময় :১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ৯:৩০ : অপরাহ্ণ

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জাকে গ্রেপ্তার ও মেয়র পদ থেকে বহিষ্কারের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে হেফাজতে ইসলাম।

আজ (১৭ ফেব্রুয়ারি) বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে জেলা শহরের মাইজদীর বড় মসজিদ মোড়ে এই বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, গত ১০ ফেব্রুয়ারি বুধবার জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের বড় রাজাপুর গ্রামের সিদ্দিকীয়া নূরানী মাদ্রাসার মাহফিলে গিয়ে বক্তা মাওলানা মুফতি ইউনুছ ও মাওলানা হানিফকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন আবদুল কাদের মির্জা। পরে কোনো কারণ ছাড়াই তাদের পুলিশে সোপর্দ করে ওই রাতেই ছাত্রলীগের এক নেতাকে দিয়ে আটককৃত মাওলানাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। একইসঙ্গে ওই মাদ্রাসাটিও বন্ধ করে দেন তিনি।

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলা আমির শিব্বির আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন হেফাজতের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী।

আজিজুল হক ইসলামাবাদী প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, ‘আপনার দলের সাধারণ সম্পাদকের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা ধর্মীয় নেতাদের গায়ে হাত তুলেছেন। তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি ও অপমান করেছেন। কিন্তু, ওবায়দুল কাদের সাহেব এ ব্যাপারে মুখ খোলেননি এবং কোনো বক্তব্য দেননি। ওবায়দুল কাদের সাহেব আপনি আপনার অবস্থান ক্লিয়ার করুন। না হলে আমরা ধরে নেব আপনিও মির্জা কাদেরের অপকর্মের সঙ্গে জড়িত। মির্জা কাদেরকে যদি গ্রেপ্তার করে বিচার করা না হয়, তাহলে দেশের ধর্মীয় নেতারা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘মির্জা কাদের ধর্মীয় নেতাদের গায়ে হাত তুলে প্রমাণ করেছেন তিনি দেশ ও আইনের শত্রু। অথচ তারা সাংবিধানিক স্বীকৃতি নিয়ে দেশে ধর্ম প্রচার করছে। তারা সরকারকে সহযোগিতা করছে। সেক্ষেত্রে মির্জা কাদের তাদের গায়ে হাত তুলে বড় অন্যায় করেছেন।’

মির্জা কাদেরের উদ্দেশে হেফাজতের এই নেতা বলেন, ‘আপনি ওবায়দুল কাদেরের ক্ষমতার বলে বিভিন্ন অপকর্ম করে চলছেন। ডিসি, এসপি, জনপ্রতিনিধি ও এমপিদের বিরুদ্ধে মিথ্যা বানোয়াট ও কল্পনাপ্রসূত একের পর এক বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। ওবায়দুল কাদের চিরদিন ক্ষমতায় থাকবেন না। আপনার বাহাদুরিও বেশিদিন চলবে না। শুধু একবার বলেন খেলা হবে। তখন বুঝিয়ে দিব খেলা কাকে বলে।’

বিক্ষোভকারীরা নোয়াখালী জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপিও প্রদান করেন।

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, হেফাজতের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির মাওলানা নিজাম উদ্দিন, জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইয়াকুব কাচেনি, জেলা নায়েবে আমির মাওলানা ছিদ্দিক আহমদ নোমান, মাওলানা নুরুল ইসলাম, মাওলানা কবির আহমদ ও মাওলানা রুহুল আমিন চৌধুরী।


আরও খবর