বৃহস্পতিবার, ৭ জুলাই, ২০২২ | ২৩ আষাঢ়, ১৪২৯ | ৭ জিলহজ, ১৪৪৩

মূলপাতা জাতীয়

দেশের মানুষের সাহসেই পদ্মা সেতু মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে: প্রধানমন্ত্রী


রাজনীতি সংবাদ ডেস্ক প্রকাশের সময় :২২ জুন, ২০২২ ১২:৪৬ : অপরাহ্ণ
আজ সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: সংগৃহীত

দেশের মানুষের সাহস ও পাশে দাঁড়ানোর কারণেই সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে পদ্মা সেতু আজ মাথা উঁচু করে দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘মানুষের কাছ থেকে যে অভূতপূর্ব সাড়াটা আমি পেয়েছিলাম, সেটাই কিন্তু আমার সাহস আর শক্তি। মানুষ আমার পাশে দাঁড়িয়েছিল। তাদেরই সাহসেই এই পদ্মা সেতু আজ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে।’

আজ বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘২০১১ সালে এপ্রিল থেকে জুন মাসের মধ্যে সেতু প্রকল্পে অর্থায়নের বিষয়ে বিশ্বব্যাংক, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি), জাইকা ও ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংকের (আইডিবি) সঙ্গে ঋণচুক্তি সই করা হয়। এরপর শুরু হয় ষড়যন্ত্র। সেই ষড়যন্ত্রের পেছনে কে বা কারা ছিল, তা বহুবার বলেছি।’

সরকারপ্রধান বলেন, ‘ব্যক্তি স্বার্থে বিশেষ এক ব্যক্তির উদ্যোগে ষড়যন্ত্র শুরু হয়। পরে আরও কয়েকজন যুক্ত হয়েছে। দুর্নাম রটানো হয়, দুর্নীতির অভিযোগ তোলা হয়। একজন বিশেষ ব্যক্তি এ ষড়যন্ত্র করেছিলেন। একজন ব্যক্তি যে ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদের জন্য এমন করতে পারেন তা ছিল আমার কল্পনার বাইরে। কারও ন্যূনতম দেশপ্রেম না থাকলেই এমনটি সম্ভব।’

পদ্মা সেতুতে বিশ্ব ব্যাংকের দুর্নীতির অভিযোগ তদন্ত নিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিশ্ব ব্যাংকের অভিযোগ মিথ্যা-বানোয়াট প্রমাণিত হয়েছে। বিশ্ব ব্যাংক ওকাম্বোকে পদ্মা সেতুতে দুর্নীতির তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছিল। অথচ ওকাম্বো নিজেই দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা দুদককে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলাম। তারা তদন্তে কিছুই পায়নি। এরপর বিশ্ব ব্যাংক কানাডার আদালতে মামলা দায়ের করলেও আদালত স্পষ্ট জানান, পদ্মা সেতুতে কোনো দুর্নীতি হয়নি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মানুষের শক্তিতে আমি বিশ্বাস করেছি। কারণ যেদিন আমি নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছিলাম, সেদিন অনেকেই এর বিরোধিতা করলেও এদেশের মানুষ আমাকে প্রেরণা দিয়েছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘ক্ষমতায় গিয়ে পদ্মা সেতুর সমীক্ষা বন্ধ করেছিল বিএনপি। বহু কাঠখড় পুড়িয়ে এটি নির্মাণ করা হয়েছে। বিশ্বব্যাংকও মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। পদ্মা সেতুতে বিদেশি কোনও প্রতিষ্ঠান অর্থায়ন করেনি। সম্পূর্ণ দেশের টাকায় নির্মিত হয়েছে এ সেতু। তাই এটি আমাদের গৌরব ও অহংকারের প্রতীক।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পদ্মা সেতু বিশ্বের সেরা উপকরণে তৈরি করা হয়েছে। এটি অত্যন্ত মানসম্পন্নভাবে তৈরি করা হয়েছে। সুতরাং এর মান নিয়ে কেউ প্রশ্ন তুলতে পারবে না।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সরকারপ্রধান বলেন, ‘আমি বরং বিশ্বব্যাংককে ধন্যবাদ জানাই। কারণ, এটা (ঋণ বন্ধ) ঘটেছিল বলেই আমরা এটা (পদ্মা সেতু) করতে পেরেছি। আমাদের একটা ধারণা ছিল, আমরা নিজেদের টাকায়, নিজেরা কিছু করতে পারি না। একটা পরমুখাপেক্ষিতা, দৈন্যতা ছিল। (বিশ্বব্যাংক ফিরিয়ে দেওয়ার কারণে) আমাদের সেই ধারণা বদলে গেছে।’

সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘অনেক ধরনের সুযোগ নিয়েই ক্ষমতায় আসা যায়। কিন্তু আমি কোনো সুযোগ নেইনি। সুযোগ নিয়ে আমি প্রধানমন্ত্রী হইনি। যেনতেনভাবে প্রধানমন্ত্রী হওয়া আমার লক্ষ্য ছিল না কখনও। আমি নির্বাচন করে ক্ষমতায় এসেছি। এসে মানুষের জন্য উন্নয়ন করেছি।’


Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

আরও খবর