বুধবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২২ | ১২ মাঘ, ১৪২৮ | ২২ জমাদিউস সানি, ১৪৪৩

মূলপাতা জাতীয় পার্টি

শারীরিক অবস্থার অবনতি, রওশন এরশাদ আবার আইসিইউতে


নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশের সময় :২৭ নভেম্বর, ২০২১ ১২:২০ : অপরাহ্ণ

ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির (জাপা) সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদকে আবারও আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে।

অক্সিজেন সেচুরেশন কমে যাওয়াসহ আরও কিছু শারীরিক জটিলতা দেখা দিলে গত ২৫ নভেম্বর তাকে কেবিন থেকে দ্বিতীয় দফায় আইসিইউতে নেওয়া হয়।

বাংলাদেশ সময় শনিবার বেলা ১১টা ২০ মিনিটে থাইল্যান্ডে অবস্থানরত রওশন এরশাদের ছেলে ও রংপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদ গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

জানা গেছে, এর আগে গত ৫ নভেম্বর বাংলাদেশ থেকে ব্যাংককে যাওয়ার পর রওশন এরশাদকে সরাসরি আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

তারপর শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে কেবিনে নেওয়া হয়েছিল। অল্প কয়েকদিনের ব্যবধানে আবারও তাকে আইসিইউতে নিতে হয়েছে।

সাদ এরশাদ একটি গণমাধ্যমকে বলেছেন, অক্সিজেন সেচুরেশন কমে যাওয়ার কারণে রওশন এরশাদকে আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে। উনার অবস্থা আসলে আগের মতোই আছে। খুব বেশি যে সিরিয়াস তা নয়। কিন্তু আইসিইউ মানেই তো ভয়ের ব্যাপার।

জানা গেছে, ৮৫ বছর বয়সী রওশন এরশাদ বার্ধক্যজনিত সমস্যা ছাড়াও নানা রোগে ভুগছেন। এরমধ্যে তার বাম পায়ে ইনফেকশন দেখা দেয়। এছাড়া ডায়াবেটিসসহ নানা রোগ দেখা দিয়েছে প্রবীণ এই রাজনীতিবিদের শরীরে।

গত ৫ নভেম্বর বিকেলে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে উন্নত চিকিৎসার জন্য রওশন এরশাদকে থাইল্যান্ডে নেওয়া হয়। সেখানে তার সঙ্গে আছেন ছেলে ও জাতীয় পার্টির যুগ্ম মহাসচিব রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদ ও পুত্রবধূ মাহিমা এরশাদ।

উল্লেখ্য, গত ১৪ আগস্ট রওশন এরশাদের ফুসফুসে জটিলতা দেখা দেয়। পরে তার অক্সিজেন লেভেল কমতে শুরু করলে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তখন বেশ কিছুদিন তাকে আইসিইউতে রাখা হয়। অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে কেবিনে নেওয়া হয়। হাসপাতালে থাকাকালেই গত ২০ অক্টোবর আবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে দ্বিতীয় দফায় আইসিইউতে নেওয়া হয়।

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের স্ত্রী রওশন এরশাদ ময়মনসিংহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য। তিনি সংসদে গত দুই মেয়াদে বিরোধী দলীয় নেতার দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

এরশাদের মৃত্যুর পর ছেলে রাহগির আল মাহি সাদ রংপুর-৩ আসন থেকে উপনির্বাচনে অংশ নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।


Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

আরও খবর