বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪ | ১০ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ১৮ মহর্‌রম, ১৪৪৬

মূলপাতা রাজধানী

রাজধানীতে বন্ধ হচ্ছে বাসের সিটিং ও গেটলক সার্ভিস


রাজনীতি সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশের সময় :১০ নভেম্বর, ২০২১ ৩:৫১ : অপরাহ্ণ
Rajnitisangbad Facebook Page

আগামী রোববার থেকে রাজধানীতে সিটিং সার্ভিস ও গেটলক বাসের সেবা বন্ধ হতে যাচ্ছে। এছাড়া তিন দিনের মধ্যে সব সিএনজি চালিত বাসে স্টিকার লাগিয়ে চিহ্নিত করা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্ল্যাহ।

আজ বুধবার সকালে রাজধানীর বাংলামোটরে সমিতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

বাসভাড়া পুনর্নির্ধারণ ও বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।

খন্দকার এনায়েত উল্ল্যাহ বলেন, ‘সিটিং সার্ভিসে কোনো নিয়মনীতি নেই। পরিবহনগুলো নিজের মতো করে যাত্রী পরিবহন করে। এতে ভোগান্তি হয় যাত্রীদের। তাই আগামী তিনদিন পর থেকে ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় সিটিং সার্ভিস এবং গেটলক সার্ভিস থাকবে না।’

 

সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব বলেন, ‘সঠিক ভাড়া নেওয়া হচ্ছে কিনা, আগামীকাল থেকে কঠিনভাবে আমরা পর্যবেক্ষণ করবো। তিন দিনের মধ্যে আমরা চেষ্টা করবো, কোন গাড়িগুলো ডিজেলচালিত, কোন গাড়িগুলো সিএনজিচালিত সেটা লিখে স্টিকার লাগিয়ে দিতে। তিন দিন সময় দিবো, এর মধ্যে যার যার গাড়িতে সিটিং সার্ভিস এবং গেটলক লেখা তুলে ফেলতে হবে। এই ধরনের সার্ভিস যেন না থাকে।’

এনায়েত উল্ল্যাহ বলেন, ‘গণমাধ্যমে প্রকাশিত সিএনজিচালিত বাস নিয়ে বিভ্রান্তিকর প্রতিবেদন দেওয়া হচ্ছে। ১২০টি কোম্পানির ছয় হাজার বাসের মধ্যে মাত্র ১৯৬টি সিএনজিচালিত বাস পাওয়া গেছে। সাধারণ মানুষের বোঝার জন্য সব বাসগুলোকে ডিজেল ও সিএনজি চিহ্নিত স্টিকারের মাধ্যমে আলাদা করে দেওয়া হবে।’

উল্লেখ্য, ঢাকায় সিটিং ও গেটলক বাস চালু হয় ২০০০ সালের দিকে। আসনের সমানসংখ্যক যাত্রী নিয়ে চলায় এসব বাস সিটিং সার্ভিস হিসেবে পরিচিতি পায়।

আবার কিছু বাস সব স্টপেজের পরিবর্তে নির্দিষ্ট কিছু স্টপেজে থেমে চলাচলের সুবাদে গেটলক নামে পরিচিত হয়ে যায়।

এসব বাস সরকার নির্ধারিত তালিকার চেয়ে বেশি ভাড়া নেয়।

মন্তব্য করুন
Rajnitisangbad Youtube


আরও খবর