বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, ২০২২ | ১২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ | ২৪ শাওয়াল, ১৪৪৩

রানওয়ের মাঝখানে চলাচল করে ট্রেন! কোথায় রয়েছে আশ্চর্য এই বিমানবন্দর


প্রকাশের সময় :১৬ এপ্রিল, ২০২২ ৭:০৬ : অপরাহ্ণ

বিমান অবতরণের জন্য প্রয়োজন বিশাল ফাঁকা রানওয়ে। সে দিক দিয়ে দেখলে নিউজিল্যান্ডে এমন এক বিমানবন্দর রয়েছে যা অত্যন্ত ঝু্ঁকিপূর্ণ এবং বিপজ্জনক।

নিউজিল্যান্ডের গিসবোর্ন শহরের ঠিক বাইরের দিকে এই বিমানবন্দরটি অবস্থিত।

এটি নিউজিল্যান্ডের উত্তর দ্বীপের পূর্ব উপকূলে গিসবোর্ন শহর থেকে ৪.২ কিলোমিটার দূরে এলগিন শহরতলিতে অবস্থিত।

এই বিমানবন্দরের রানওয়ের সঙ্গে একটি রেলপথ সংযুক্ত রয়েছে। রানওয়ের মাঝ বরাবর চলে গিয়েছে সেই রেলপথ।

ট্রেনের সময়সূচি অনুযায়ী গিসবোর্ন বিমানবন্দরের রানওয়েতে বিমান অবতরণের সময়সূচি তৈরি করা হয়।

গিসবোর্ন বিমানবন্দরের আয়তন ৩৯৫ একর। এটি নিউজিল্যান্ডের একটি আঞ্চলিক বিমানবন্দর।

বছরে প্রায় ৬০ টি আঞ্চলিক বিমান ওঠানামা করে এবং প্রায় ১৫ লক্ষ যাত্রী যাতায়াত করেন এই বিমানবন্দরে।

তিনটি ঘাস বিছানো রানওয়ের সঙ্গে একটি প্রধান রানওয়ে আছে। এটি ৪২৯৭ ফুট লম্বা।

এই মূল রানওয়ের মাঝ বরাবর চলে গিয়েছে ‘পামারস্টোন নর্থ গিসবর্ন রেলওয়ে লাইন’।

বিশ্বের বিপজ্জনক বিমানবন্দরের তালিকায় অন্যতম এই গিসবোর্ন বিমানবন্দর।

রানওয়ের মাঝখান দিয়ে চলে যাওয়া রেলপথে ট্রেন চলাচল করে হামেশাই।

আশ্চর্য বিমানবন্দর! রানওয়ের মাঝখানে চলাচল করে ট্রেন

যখন বিমান এবং ট্রেন কাছাকাছি সময়ে ওই স্থানে চলে আসে, তখন যে কোনো একটির যাত্রা স্থগিত রাখা হয়।

বিষয়টি পড়ে তেমন বিপজ্জনক মনে না হলেও বহু দক্ষ রেলচালক এবং বিমানচালক তাদের আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

যখন বিমান এবং রেল একই সময় কাছাকাছি চলে আসে তখন ট্রেন থেকে অবতরণকারী বিমান মাত্র কয়েক ফুট দূরেই অবস্থান করে। ভুলে বড়সড় দুর্ঘটনা অস্বাভাবিক নয়।

আশার কথা এই, কড়া নজরদারি এবং উন্নত নিরাপত্তা ব্যবস্থার জন্য এখনও পর্যন্ত পামারস্টন উত্তর-গিসবোর্ন রেল লাইন দুর্ভাগ্যজনক কোন ঘটনা ঘটেনি।

এই মুহূর্তে, গিসবোর্ন বিমানবন্দরটি শুধুমাত্র আঞ্চলিক বিমানের ওঠানামার জন্য ব্যবহৃত হয়।

গিসবোর্নে বিমানবন্দর এবং রেলপথগুলি প্রতিদিন সকাল ৬ টা ৩০ মিনিট থেকে রাত ৮ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত চালু থাকে। রাত্রি ৮ টা ৩০ মিনিটের পর থেকে সকাল পর্যন্ত রানওয়ে বন্ধ থাকে।

রোমাঞ্চকর অনুভূতির সাক্ষী হতে চাইলে ঘুরে আসতেই পারেন নিউজিল্যান্ডের গিসবোর্ন বিমানবন্দরে।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা


Comments are closed.

আরও খবর