বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪ | ১০ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ১৮ মহর্‌রম, ১৪৪৬

মূলপাতা দেশজুড়ে

থানায় বসে খামে ভরে ‘ঘুষের টাকা’ নিলেন ওসি, ভিডিও ফাঁস


রাজনীতি সংবাদ প্রতিনিধি, রাজশাহী প্রকাশের সময় :৬ জুলাই, ২০২৪ ১১:২৯ : পূর্বাহ্ণ
রাজশাহীর চন্দ্রিমা থানার ওসি মাহবুব আলম তার অফিসে এক ব্যক্তির কাছ থেকে খামে ‘ঘুষের টাকা’ নেওয়ার দৃশ্য।
Rajnitisangbad Facebook Page

রাজশাহী মহানগরের চন্দ্রিমা থানার ওসি মাহবুব আলম তার অফিসে বসে এক ব্যক্তির সঙ্গে খাম আদান-প্রদান করছেন-এমন একটি ভিডিও ফাঁস হয়েছে। এই ভিডিও ফাঁস হওয়ার পর ওসিকে নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, ওসি তার অফিসে নিজের চেয়ারে বসে রয়েছেন। সামনে থাকা এক ব্যক্তি তার কাছে একটি খাম চান। এ সময় ওসি তার ড্রয়ার থেকে একটি খাম বের করে দেন। পরে ওই ব্যক্তি সেই খামে টাকা ঢুকিয়ে খামটি এগিয়ে দিলে ওসি সেই খাম তার ড্রায়ারে ঢোকান।

এ সময় ওই ব্যক্তি ওসিকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘মাহাবুব (ওসি) ভাই আপনি আমাকে চেনেন, জানেন, বোঝেন। আমি বিপদে পড়েছি বলে আপনার কাছে এসেছি। আমি সবসময় বিপদেই পড়ি। আরেকদিন এসে বলবো ও আমাকে কী পর্যায়ে পেরেশানির মধ্যে রেখেছে। যদি অফিশিয়ালি সলিউশন করেতে পারতাম আমি! সে জিএম সাহেবের কাছে ৪০ জন লোক নিয়ে গেছে রিমুভ ফ্রম সার্ভিস করার জন্য আমার বোনের। আমি আপনাকে কী বোঝাবো।’

 

ওসি কথাগুলোর ফাঁকে খামটি ড্রয়ারে ঢুকিয়ে ওই ব্যক্তির উদ্দেশে বলেন, ‘এর আগেরটাতেও আমি আপনাকে হেল্প করেছি।’

ওসির কাছ থেকে খাম নিয়ে আবার ওসিকে ফেরত দেওয়া ব্যক্তির পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এই ভিডিও সম্পর্কে জানতে চাইলে ওসি মাহবুব আলম বলেন, ‘আমার সম্পর্কে জানেন। আমি পাবলিকের কাছ থেকে টাকা খাই না। কার সঙ্গে এ রকম কথা হয়েছে, সেটা মনে করতে পারছি না। তবে একজনের কাছ থেকে খামে ভরে ছিনতাইকারীদের তালিকা নিয়েছিলাম। ওই খাম ওইভাবেই আছে। সেই তালিকা নেওয়ার ভিডিও হতে পারে।’

খামে ভরে টাকা নেওয়ার অভিযোগ অসত্য দাবি করে ওসি মাহবুব আলম বলেন, ‘এটা নিয়ে আমি ঝামেলায় আছি।।অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। আমাকে ফাঁসানো হয়েছে। খামের মধ্যে কোন টাকা ছিলো না। কাগজ ছিলো।’

উল্লেখ্য, ২০২১ সালে এই ওসির বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত আক্রোশের জেরে এক নারী পুলিশ পরিদর্শকের স্বামীকে সাজানো মামলায় গ্রেপ্তার দেখানোর অভিযোগ রয়েছে। এর প্রতিকার চেয়ে ওই বছরের ২৪ মার্চ রাজশাহী মহানগর পুলিশের কমিশনার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন ওই নারী পুলিশ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন: ঘুষ নিচ্ছিলেন কলকারখানা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা, হাতেনাতে ধরলো দুদক

মন্তব্য করুন
Rajnitisangbad Youtube


আরও খবর