মঙ্গলবার, ২৮ মে, ২০২৪ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ | ১৯ জিলকদ, ১৪৪৫

মূলপাতা দেশজুড়ে

কে হবেন গাজীপুরের নগরপিতা


রাজনীতি সংবাদ প্রতিনিধি, গাজীপুর প্রকাশের সময় :২৫ মে, ২০২৩ ৮:১৫ : পূর্বাহ্ণ
আলোচিত প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ প্রার্থী আজমত উল্লা খান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা খাতুন
Rajnitisangbad Facebook Page

বহুল প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আজ বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন। আজই নির্ধারণ হয়ে যাবে, কে হতে যাচ্ছেন গাজীপুরের তৃতীয় নগরপিতা।

৪৮০টি ভোটকেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে ভোটগ্রহণ। এই নির্বাচনে এবারই প্রথম ইভিএমে ভোট দেবেন নগরবাসী।

নির্বাচনে মেয়র পদে আটজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এরা হলেন-আওয়ামী লীগ প্রার্থী আজমত উল্লা খান (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা খাতুন (টেবিল ঘড়ি), জাতীয় পার্টি প্রার্থী এমএম নিয়াজ উদ্দিন (লাঙ্গল), ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী গাজী আতাউর রহমান (হাতপাখা), জাকের পার্টির প্রার্থী রাজু আহমেদ (গোলাপ ফুল), গণফ্রন্টের আতিকুল ইসলাম (মাছ), স্বতন্ত্র প্রার্থী সরকার শাহনুর ইসলাম রনি (হাতি) ও হারুন অর রশিদ (ঘোড়া)।

মেয়র পদে আটজন প্রার্থী থাকলেও নৌকার প্রার্থী আজমত উল্লাহ খান ও সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের মা জায়েদা খাতুনের মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ ছাড়া নির্বাচনে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৪৩ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৭৮ জন অর্থাৎ মোট ৩২৯ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

আয়তনের দিক দিয়ে দেশের সবচেয়ে বড় সিটি করপোরেশন এই গাজীপুর। প্রায় ৩৩০ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের ৩০ লক্ষাধিক জনসংখ্যা অধ্যুষিত গাজীপুর সিটি করপোরেশনে মোট ভোটারের সংখ্যা ১১ লাখ ৭৯ হাজার ৪৭৬ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার পাঁচ লাখ ৯২ হাজার ৭৬২ জন, মহিলা ভোটার পাঁচ লাখ ৮৬ হাজার ৬৯৬ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের ১৮ জন।

উৎসবের আমেজের পাশাপাশি ভোটকে কেন্দ্র করে নগরবাসীর মধ্যে রয়েছে নানান শঙ্কা ও উৎকণ্ঠা।

রাজধানী ঢাকার লাগোয়া গাজীপুর সিটির নির্বাচন শুরু থেকেই ব্যাপক আলোচনায়। আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন না পেয়ে সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম ও তার মায়ের প্রার্থী হওয়া, জাহাঙ্গীরের প্রার্থিতা ঋণখেলাপি হওয়ার কারণে বাদ হয়ে যাওয়া এবং পরবর্তীতে মাকে নিয়ে জাহাঙ্গীরের ভোটের মাঠে থাকা নিয়ে আলোচনা গাজীপুর ছাপিয়ে ছড়িয়ে পড়ে দেশজুড়ে।

দেশের প্রধান বিরোধী রাজনৈতিক শক্তি বিএনপি এই নির্বাচন বর্জন করলেও নির্বাচনের আনুষ্ঠানিকতায় কোনো কমতি রাখেনি নির্বাচন কমিশন। তফসিল ঘোষণার পর থেকেই আওয়ামী লীগের আলোচিত- সমালোচিত দল থেকে বহিষ্কৃত নেতা সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বাড়িয়েছেন নির্বাচনের উত্তেজনার পারদ।

নিজে নির্বাচনে অংশ নিতে না পেরে তার মা জায়েদা খাতুনকে করে তুলেছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যডভোকেট আজমত উল্লা খানের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী। স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা বারবার তুলেছেন হামলা ও প্রচার প্রচারে বাধা দেয়ার অভিযোগ। এখন অপেক্ষা ভোটের।

ভোটের তিনদিন আগে গাজীপুরের নির্বাচন উপমহাদেশের শ্রেষ্ঠ নির্বাচন হবে বলে জানিয়েছিলেন ইসি মো. আলমগীর।

ওই সময় তিনি বলেছিলেন, ‘উপমহাদেশে যত ভোট হয়, সেসব ভোটের চেয়ে গাজীপুরের ভোট সর্বশ্রেষ্ঠ হবে। গাজীপুরের ভোট অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কঠোর অবস্থানে আছে। ভোটে অনিয়ম হলে গাইবান্ধার চেয়েও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আরও পড়ুন: হঠাৎ দুবাই যাওয়ার বিমান টিকিট কাটলেন জাহাঙ্গীর

মন্তব্য করুন
Rajnitisangbad Youtube


আরও খবর