fbpx





বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর, ২০২২ | ২১ আশ্বিন, ১৪২৯ | ৯ রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪

মূলপাতা চট্ট-মেট্টো

ফলাফলের প্রিন্টেড কপি না দেওয়া মানে নির্বাচনে মহা ভোটডাকাতি হয়েছে: শাহাদাত


রাজনীতি সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশের সময় :১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ৩:০০ : অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করা বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন আজ (১১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয়ে গিয়ে ভোটের ফলাফলের প্রিন্টেড কপি চেয়েছেন রিটার্নিং অফিসার কাছে। কিন্তু তা দিতে পারেননি রিটার্নিং অফিসার মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান। নির্বাচন কার্যালয় থেকে বেরিয়ে নগর বিএনপির আহ্বায়ক শাহাদাত হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ভোটের দিন নির্বাচনী কর্মকর্তারা ১০টি কক্ষে ফলাফলের প্রিন্টেড কপি দিয়েছিল। বাকি ৪ হাজার ৮৮৫টি কক্ষের ফলাফলের শিট নাকি দিতে পারবেন না রিটার্নিং অফিসার। তার অর্থ নির্বাচনে মহা ভোটডাকাতি হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে মামলা করার ঘোষণা দিয়ে ডা. শাহাদাত বলেন, প্রতিটা ইভিএম মেশিনের একটি প্রিন্টেড কপি থাকে। যার সাথে নির্বাচন কমিশনের হাতে লেখা একটা কপি থাকে। ভোটের দিন নির্বাচনী কর্মকর্তারা ১০টি কক্ষে প্রিন্টেড কপি দিতে পেরেছে, অবশ্যই ৪ হাজার ৮৮৫টি কক্ষে তাদের এটা দিতে হবে। কিন্তু রিটার্নিং অফিসার বলেছেন, এখান থেকে দেওয়া সম্ভব নয়। কিন্তু এখান থেকে কেন সম্ভব নয়, সেটার ব্যাখ্যা তিনি দিতে পারেননি। তিনি বলেছেন, নির্বাচন কমিশনে আবার আবেদন করতে। কিন্তু তাদের কথা মতই আমরা এখানে আবেদন করেছিলাম। ১০ দিন পর আজকে এসে সেই রেজাল্ট শিট তারা দিতে পারেননি। কাজেই এই যে ভোট ডাকাতি করে আমাদেরকে জোর করে হারিয়ে দিয়েছে, আমরা নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে মামলায় যাবো।

এ বিএনপি নেতা অভিযোগ করেন, ভোটের দিন দুপুর ২টা পর্যন্ত ৪-৬ শতাংশ ভোট পড়েছে। কিন্তু দিন শেষে সাড়ে ২২ শতাংশ ভোট দেখানো হয়েছে। নির্বাচনের দিন প্রতিঘণ্টার ভোটের হিসাব দেখতে চেয়েছিলাম। ৭ দিন সময়ও দিয়েছি। কিন্তু ১০ দিন পরেও এই তথ্য কমিশন দিতে পারেনি। নির্বাচনে ৪ হাজার ৮৮৫টি ইভিএম ব্যবহার করা হয়। সেখানে মাত্র ১০টি বুথে ইভিএম’র প্রিন্টেড কপি দেওয়া হয়েছে। যদি ১০টি বুথের ইভিএমের প্রিন্টেড কপি থাকে তাহলে সবগুলো ইভিএমের প্রিন্টেড কপি দিতে হবে। এর আগে বোয়ালখালী উপ-নির্বাচনেও এ তথ্য দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন কমিশন বলেছে এ তথ্য এখান থেকে দেওয়া সম্ভব নয়। ঢাকা থেকে সংগ্রহ করতে হবে।

এ ব্যাপারে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, বিএনপির মেয়র প্রার্থীকে আমার স্বাক্ষরিত ৭৩৫ কেন্দ্রের ফলাফল সরবরাহ করেছি। কিন্তু ইভিএমের প্রিন্টেড কপির বিষয়ে তিনি তথ্য চেয়েছেন। বিষয়টি আমার এখতিয়ারে নেই। তথ্যগুলো ঢাকায় নির্বাচন কমিশন সংরক্ষণ করে। নির্বাচন কমিশনের কাছে যথাযথভাবে আবেদন করলে কমিশন সেটা বিবেচনা করবে।

উল্লেখ্য, ২৭ জানুয়ারি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ৩ লাখ ৬৯ হাজার ২৮৪ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী।

 


আরও খবর