শুক্রবার, ২১ জুন, ২০২৪ | ৭ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৪ জিলহজ, ১৪৪৫

মূলপাতা আঞ্চলিক রাজনীতি

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন নিয়ে মুখ খুললেন কাদের মির্জা (ভিডিও)


রাজনীতি সংবাদ ডেস্ক প্রকাশের সময় :৮ জুন, ২০২৪ ৯:১৭ : অপরাহ্ণ
নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল কাদের মির্জা। ছবি: সংগৃহীত
Rajnitisangbad Facebook Page

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটে অনিয়মের কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে টাকা দিয়ে নারীদের লাইনে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়।’

কাদের মির্জা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও দুই ভাইস চেয়ারম্যানের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

কাদের মির্জা বলেন, ‘সদ্য অনুষ্ঠিত হওয়া উপজেলা নির্বাচনের চেয়েও বেশি অনিয়ম হয়েছে গত পার্লামেন্ট নির্বাচনে। ১০-১৫ জন, ২০ জন নারী এনে ৫০০ টাকা করে দিয়ে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়েছিল। কোনো অফিসার কিংবা আমরা গেলেই নারীদের দাঁড় করিয়ে দেখানো হয়। ভোট হয়েছে এই সিস্টেমে। মিথ্যা কথা বলেছি?…না।’

কাদের মির্জার এই বক্তব্যটি তখন দলের নেতাকর্মীরা ফেসবুকে লাইভে প্রচার করার ফলে সেটি দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়। বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘুরপাক খাচ্ছে তার দেওয়া বক্তব্যটি।

উল্লেখ্য, গত ৭ জানুয়ারির দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কোম্পানীগঞ্জ ও কবিরহাট উপজেলা নিয়ে গঠিত নোয়াখালী-৫ আসন থেকে টানা চতুর্থবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন ওবায়দুল কাদের। প্রধান বিরোধী দল বিএনপি ও অন্যান্য দল নির্বাচন বর্জন করলেও ওবায়দুল কাদেরের বিপক্ষে স্বনিয়ন্ত্রিত জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন দলের চারজন প্রার্থী ছিলেন।

অনুষ্ঠানে সদ্য অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচন নিয়েও অনিয়মের অভিযোগ তুলেন কাদের মির্জা। তিনি বলেন, ‘এবারের নির্বাচনে (উপজেলা পরিষদ) উনারা (কাদের মির্জার প্রার্থীর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী) অনিয়ম করেনি? চর কাঁকড়ার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে এক ছেলে আমাদের সঙ্গে থেকে ১০০ ভোট একসঙ্গে মেরেছে দোয়াত-কলম প্রতীকে।’

উল্লেখ্য, গত ২৯ মে তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কোম্পানীগঞ্জে ভোট হয়। এতে কাদের মির্জার ছোট ভাই শাহাদাত হোসেন চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেন। তবে কাদের মির্জা সমর্থন দেন গোলাম শরীফ চৌধুরীকে।

মন্তব্য করুন
Rajnitisangbad Youtube


আরও খবর