শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২৪ | ৬ বৈশাখ, ১৪৩১ | ৯ শাওয়াল, ১৪৪৫

মূলপাতা আঞ্চলিক রাজনীতি

সরকার ইফতার মাহফিল সংস্কৃতিকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে: আমীর খসরু


রাজনীতি সংবাদ প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম প্রকাশের সময় :২৬ মার্চ, ২০২৪ ৮:১৩ : অপরাহ্ণ
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। ফাইল ছবি
Rajnitisangbad Facebook Page

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ‘হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে লুটপাট হয়ে গেছে আর সরকার এখন ইফতার মাহফিল না করে কৃচ্ছ্রসাধন করার কথা বলছে। এর মাধ্যমে সরকার বাংলাদেশের ইফতার মাহফিল সংস্কৃতিকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে।’

২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার বিকেলে চট্টগ্রাম মহানগরীর একটি কনভেনশন হলে ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশে ইফতার মাহফিল হবে কি হবে না এটি এখন প্রশ্নবিদ্ধ-এমন মন্তব্য করে আমীর খসরু বলেন, ‘সরকারের পক্ষ বলা থেকে হয়েছে ইফতার মাহফিলের নামে কৃচ্ছ্রসাধন করতে। এখন এমন এক অবস্থায় পৌঁছেছে দেশ। অথচ হাজার হাজার কোটি টাকা লোপাট হয়েছে, বিদেশে পাচার হয়েছে আর এখন বলা হচ্ছে ইফতারে কৃচ্ছ্রসাধন করতে।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, ‘প্রয়োজনে এখন প্রতিদিন ইফতার মাহফিল হবে। অর্থ না থাকলে চিড়া-মুড়ি দিয়ে গরিবদের নিয়ে পাড়া-মহল্লার রাস্তায় রাস্তায় ইফতার হবে।’

সরকারের কড়া সমালোচনা করে আমীর খসরু বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র চলছে। স্বাধীনতার মূল অস্ত্র ছিল গণতন্ত্র। ভোটাধিকার ফেরানোর জন্য যুদ্ধ করেছিল বাঙালিরা। স্বাধীনতার এই ৫৩ বছরে আজ ভোটাধিকারসহ নাগরিকের সব অধিকার ভূলুণ্ঠিত হয়েছে।’

বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘৭ জানুয়ারির নির্বাচনে জনগণ গণভোট দিয়েছে নির্বাচনে যাবে কি যাবে না। বিএনপির পক্ষ থেকে ডাক ছিল নির্বাচন বয়কটের, ভোট বর্জনের। সেই ডাকে সাড়া দিয়ে ৯৫ শতাংশ মানুষ ভোট না দিয়ে নির্বাচনকে প্রত্যাখ্যান করেছে।’

আমীর খসরু বলেন, ‘আমাদের আন্দোলন চলছে, নতুনভাবে আন্দোলনের কিছু নেই। এই ৯৫ শতাংশ মানুষ আমাদের আন্দোলনের অংশ। গণতন্ত্রকামী সবাই এই আন্দোলনে আছে। হালুয়া রুটির জন্য, এমপি-মন্ত্রী হওয়ার জন্য আমরা আন্দোলন করছি না। ৭ তারিখের আগে বিএনপির আন্দোলন যত শক্তিশালী ছিল, ৭ তারিখের পর তা আরও বেশি বেগবান ও শক্তিশালী হয়েছে।’

সভায় কারামুক্ত হওয়া বিএনপি নেতাকর্মী ও মুক্তিযোদ্ধাদের ফুলের মালা দিয়ে বরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা গোলাম আকবর খন্দকার ও এস এম ফজলুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন। সভা সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর।

মন্তব্য করুন
Rajnitisangbad Youtube


আরও খবর