বুধবার, ৬ জুলাই, ২০২২ | ২২ আষাঢ়, ১৪২৯ | ৬ জিলহজ, ১৪৪৩

মূলপাতা বিএনপি

শীর্ষ নেতাদের ছাড়াই বিএনপির সমাবেশ


রাজনীতি সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশের সময় :১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১০:০০ : অপরাহ্ণ

দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে রাজধানীতে সমাবেশ করেছে বিএনপি। তবে কেন্দ্রীয় সমাবেশে ছিলেন না স্থায়ী কমিটির কোনো সদস্য। কর্মসূচিটি কেন্দ্রীয় পর্যায়ের থাকলেও ছিল না কর্মী-সমর্থকদের উল্লেখযোগ্য সমাগম। দলের স্থায়ী কমিটির নেতারা আসবেন বলে বার বার মাইকে ঘোষণা করা হলেও শেষ পর্যন্ত দেখা মেলেনি তাদের কারো।

বুধবার ( ১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের দাবিতে সমাবেশ করে বিএনপি। নীতিনির্ধারনী পর্যায়ের নেতারা না আসলে শেষমেষ মধ্যম সারির নেতাদের দিয়েই সম্পন্ন করা হয় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের রাস্তায় আয়োজিত এই প্রতিবাদ কর্মসূচি।

সমাবেশে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমান বলেন, ‘আমরা বলেছি, এই সরকার যদি শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিলের চিন্তা করে তবে এই সরকারের হাত জ্বলেপুড়ে ছারখার হয়ে যাবে। এই সরকারের পায়ের নীচে মাটি নেই, এই সরকারের সঙ্গে জনগণ নেই। এজন্যই এই সরকার জনগণকে ভয় পায়।’

ডাকসুর সাবেক এই ভিপি আরও বলেন, ‘২০১৮ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গায়ের জোরে ক্ষমতায় থাকার জন্য ৩০ ডিসেম্বরের ভোট ২৯ তারিখ রাতে করা হয়েছে। আজকে এজন্যই এই সরকার বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা, সেক্টর কমান্ডার, মহান স্বাধীনতার ঘোষক, বীর উত্তম, রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে।’

বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম পুলিশের উদ্দেশে বলেন, ‘আজকে পুলিশের অবস্থান দেখে মনে হচ্ছে পুরো ঢাকা শহর বিএনপির দখলে। আপনারা এভাবে কি আওয়ামী লীগকে রক্ষা করতে পারবেন?’

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, সহসাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আযাদ, শহিদুল ইসলাম বাবুল, ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল, শ্রমিকদল ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম বাদল প্রমুখ।


Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

আরও খবর