রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২ | ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ | ২ জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪

মূলপাতা দেশজুড়ে

গাড়ি বহরে হামলার পর কাদের মির্জার প্রশ্ন

কাদের ইঙ্গিতে নিজাম-একরামরা এতো দাপট দেখায়?


রাজনীতি সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশের সময় :১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১:৪৫ : অপরাহ্ণ

নোয়াখালীর বসুরহাটের পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ফেনীর দাগনভুঞা উপজেলায় তার গাড়ি বহরে হামলার ঘটনায় ফেনী ও নোয়াখালীর দুই সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী ও একরামুল করিম চৌধুরীর দিকে আঙ্গুল তুলেছেন। ক্ষোভে ফুঁসে উঠে তিনি প্রশ্ন রাখেন, ‘কাদের ইঙ্গিতে আজকে নিজাম হাজারী, একরাম চৌধুরী এতো দাপট দেখিয়ে চলে? তারা আমাদের ওপর হামলা করার মতো ঘটনা ঘটাচ্ছে। এ দেশে কি সরকার নেই ? এ দেশে কি প্রশাসন নেই ?’

কাদের মির্জা আজ বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ থেকে চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে ফেনী জেলার দাগনভূঞা বাজারে তার গাড়ি বহরে হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় বসুরহাট ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সেলিম (৫০) আহত হয়েছেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই কাদের মির্জা ঘটনার পর ফেসবুক লাইভে এসে বলেন, ‘আজ চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার অফিসে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগদানের জন্য যাওয়ার পথে ফেনীর দাগনভুঞাতে আমার গাড়িবহরে হামলা করেছে। যারা ফেনীতে একরামকে হত্যা করেছে ঠিক একই কায়দায় আমাকে হত্যা করার জন্য একরাম চৌধুরীর সন্ত্রাসীরা, নিজাম হাজারীর সন্ত্রাসীরা আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার গাড়ি রোধ করে। একটা ট্রাক থাকার কারণে আমার গাড়ি দ্রুত আসার সুযোগ পেয়েছে। যে কারণে কিছু করতে পারেনি। আমার পেছনে থাকা আরও ১০ থেকে ১২টি গাড়ি ছিল সেগুলোর ওপর দুর্বৃত্তরা ইটপাটকেল ও লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা করে। তারা গাড়িবহর লক্ষ্য করে ডিম ছোড়ে। এতে গাড়ির ব্যাপক ক্ষতি হয়। হামলায় বসুরহাটের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি সেলিম আহত হন। ’

তিনি বলেন, ‘ফেনীতে যে হত্যার রাজনীতি চলছে, আমি আগেও বলেছিলাম এটা বন্ধ করার জন্য। কিন্তু কেন বন্ধ করা হচ্ছে না! এটার কি বিচার হবে না? বসুরহাট থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ফেনীতে আসতে দেওয়া হয় না। তেলের জন্য এলে নিজাম হাজারী, দিদারের লোকজনকে টাকা দিতে হয়। পুলিশকে টাকা দিতে হয়, ট্রাফিক পুলিশকে টাকা দিতে হয়। আমরা যাকে এ এলাকার মন্ত্রী বানিয়েছি, তার কাজ কি? সে মন্ত্রী অপশক্তির কাছে আজ মাথানত করেছে।’

কাদের মির্জা আরও বলেন, ‘আজকে শপথ অনুষ্ঠান থেকে আমার এলাকায় ফিরে গিয়ে এদের দল থেকে বহিষ্কারের জন্য, নোয়াখালী ও ফেনীতে অপরাজনীতি বন্ধ করতে, ভোট চুরির বিরুদ্ধে, অনিয়মের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব। আমি বলেছি, সাহস করে সত্য কথা বলবো। অন্যায়-অবিচার-জুলুমের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করবো। শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান থাকবে, এ ঘটনাগুলোর সঙ্গে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন। না হলে আপনার সব অর্জন এরা ধ্বংস করবে। এদের কারা সেল্টার দিচ্ছে? তাদের চিহ্নিত করেন। সে যত বড় নেতা হোক, যত বড় মন্ত্রী হোক। তাদের বিরুদ্ধ ব্যবস্থা নিন।’

আজ রাত ৮টায় লাইভে এসে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করবেন বলে জানান আবদুল কাদের মির্জা।


আরও খবর