শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২২ | ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ | ১৪ জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪

মূলপাতা আঞ্চলিক রাজনীতি

ভাইয়ের নির্দেশে হরতাল প্রত্যাহার করলেন কাদের মির্জা


রাজনীতি সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশের সময় :২৩ জানুয়ারি, ২০২১ ৭:০০ : অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের পরিবার সম্পর্কে নেতিবাচক মন্তব্যের প্রতিবাদ ও নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর বহিষ্কারের দাবিতে কোম্পানিগঞ্জে ডাকা অর্ধদিবস হরতাল প্রত্যাহার করা হয়েছে।

আজ (২৩ জানুয়ারি) শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের নির্দেশে এই হরতাল প্রত্যাহার করেন তার ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

বসুরহাট পৌরসভার বঙ্গবন্ধু চত্বরে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে নবনির্বাচিত মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আমাদের দাবি প্রধানমন্ত্রীর সদয় বিবেচনাধীন রয়েছে। আমাদের নেতা ওবায়দুল কাদেরের নির্দেশে আমরা এই হরতাল প্রত্যাহার করেছি।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পৌর বঙ্গবন্ধু চত্বরে নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র ও আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোটভাই আবদুল কাদের মির্জা অবস্থান ধর্মঘট প্রত্যাহার করে এই আধাবেলা হরতালের ডাক দেন।

রোববার ভোর ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত এ হরতালের ঘোষণা দেয়া হয়েছিল।

গতকাল শুক্রবার থেকেই অবস্থান ধর্মঘট পালন করে আসছেন ওবায়দুল কাদেরের সমর্থকরা। রাত থেকেই বসুরহাট বঙ্গবন্ধু চত্বরে অবস্থান নেয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনগুলো। কনকনে শীত উপেক্ষা করেই সারারাত একরামুল করিম চৌধুরীকে দল থেকে বহিষ্কার, জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি বাতিল, নোয়াখালীতে অপরাজনীতি, টেন্ডারবাজি, চাকরি বাণিজ্য বন্ধসহ বিভিন্ন দাবিতে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি করছিলেন। এ কর্মসূচি শুরুর ১৭ ঘণ্টা পর শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় অবস্থান ধর্মঘট প্রত্যাহার করেন তারা। এ সময় ঘোষণা দেওয়া হয় অর্ধদিবস হরতালের।

উল্লেখ্য, নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী বৃহস্পতিবার গভীর রাতে নিজের ফেসবুকে লাইভে এসে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা ওবায়দুল কাদেরকে ‘রাজাকার ফ্যামিলির লোক’ বলে মন্তব্য করেন। তবে কিছুক্ষণ পর সে ভিডিও সরিয়ে ফেললেও তার আগেই তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়।

এর প্রতিবাদে এমপি একরাম চৌধুরীর বহিষ্কার ও বিচার দাবিতে ওবায়দুল কাদেরের নিজ এলাকা নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় হাজার হাজার আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী ও এলাকাবাসী লাগাতার বিক্ষোভে অংশ নেয়। এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।


আরও খবর