শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২২ | ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ | ১৪ জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪

মূলপাতা খেলা

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হেসেখেলে হারিয়ে সিরিজ জয়ের রেকর্ড


রাজনীতি সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশের সময় :২২ জানুয়ারি, ২০২১ ৬:০১ : অপরাহ্ণ

১০০ বল আর ৭ উইকেট হাতে রেখেই ‘অনভিজ্ঞ’ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতল বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে ৬ উইকেটে জেতার পর শুক্রবার মিরপুরে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ১৪৯ রানের টার্গেট সহজেই উতরে যায় তামিম-সাকিবরা। এই জয়ে উইন্ডিজদের বিপক্ষে টানা তিনটি সিরিজ জয়ের রেকর্ড গড়লো টাইগাররা।

২০১৮ সালের জুলাইতে অ্যাওয়ে ভেন্যুতে ২-১ ব্যবধানে, একই বছর ডিসেম্বরে ঘরের মাঠে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ। আবারও ঘরের মাঠে এক ম্যাচ হাতে রেখেই নিশ্চিত হয়ে গেল সিরিজ জয়। সবমিলিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের হ্যাটট্রিক করলো লাল-সবুজের বাংলাদেশ।

শুক্রবার টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে মোস্তাফিজুর রহমানের গতির পর মেহেদী হাসান মিরাজ ও সাকিব আল হাসানের ঘূর্ণিতে বিভ্রান্ত হয়ে ১৪৮ রানে অলআউট হয় উইন্ডিজ।

দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪১ রান করেন রোভম্যান পাওয়েল। তার কারণেই দেড়শ’র কাছাকাছি স্কোর গড়তে সক্ষম হয় ক্যারিবীয়রা। বাংলাদেশ দলের হয়ে মিরাজ চার, মোস্তাফিজ-সাকিব দুটি করে উইকেট নেন।

সফরকারীদের দেওয়া ১৪৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুটা ভালোই করে টাইগাররা। দুই ওপেনার তামিম এবং লিটন দেখেশুনেই শুরু করেন। ভালোই খেলতে থাকা লিটন বিদায় নেন ব্যক্তিগত ২২ রান করে। তবে অন্য প্রান্তে অটল থাকেন অধিনায়ক তামিম। শান্তকে সঙ্গে নিয়ে এগুতে থাকেন তিনি।

সাকিব আল হাসানের পছন্দের পজিশন তিন নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে এদিনও সুবিধা করতে পারেননি নাজমুল হোসেন শান্ত। ১৭ রানে তাকে সাজঘরের পথ দেখিয়েছেন জেসন মোহাম্মদ। ডানহাতি স্পিনারের শর্ট বল পুল করতে গিয়ে শর্ট মিড উইকেটে ক্যাচ দেন শান্ত। দলীয় ৭৭ রানে ফিরে যান তিনি। এদিকে অর্ধশতক হাকিয়ে ফিরে গেছেন টাইগার অধিনায়ক তামিম ইকবাল। এটি তামিমের ৪৮তম ফিফটি। শেষ পর্যন্ত মুশফিকুর রহিম ৯ ও সাকিব আল হাসান ৪৩ রানে অপরাজিত থেকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন।

সিরিজের শেষ ওয়ানডে ম্যাচটি আগামী সোমবার চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ৪৩.৪ ওভারে ১৪৮/১০ (রোভম্যান পাওয়েল ৪১, কেজর্ন ওটলি ২৪, এনকেরুমা ২০; মিরাজ ৪/২৫, মোস্তাফিজ ২/১৫, সাকিব ২/৩০)।

বাংলাদেশ: ৩৩.২ ওভারে ১৪৯ (তামিম ৫০, সাকিব ৪৩*,লিটন ২২, শান্ত ১৭, মুশফিক ৯*)।

ফল: বাংলাদেশ ৭ উইকেটে জয়ী।

 


আরও খবর