বুধবার, ৬ জুলাই, ২০২২ | ২২ আষাঢ়, ১৪২৯ | ৬ জিলহজ, ১৪৪৩

মূলপাতা আন্তর্জাতিক

পুলিশের নিরাপত্তায় বিল, আবারও ফ্রান্সে বিক্ষোভ, সংঘর্ষ


রাজনীতি সংবাদ ডেস্ক প্রকাশের সময় :৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ১১:২৬ : পূর্বাহ্ণ

ফ্রান্সে পুলিশের নিরাপত্তা সংক্রান্ত একটি বিতর্কিত খসড়া আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ অব্যাহত রয়েছে। দেশটির রাজধানী প্যারিসে গতকাল শনিবার (৫ ডিসেম্বর) পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের একাংশের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে।

বিক্ষোভকারীরা সেখানে বেশ কিছু দোকানের জানালা ভেঙে ফেলা এবং গাড়িতে আগুন দেওয়া পর পুলিশ বিক্ষোভকারীদের উপর টিয়ারগ্যাস ছোঁড়ে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, প্যারিসে সরকার বিরোধী ‘ইয়েলো ভেস্ট’ আন্দোলনের সদস্যেরাসহ কয়েক হাজার মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ মিছিল করার সময় মুখ ঢাকা ও কালো পোশাক পরা একদল বিক্ষোভকারী দাঙ্গা পুলিশের ওপর হামলা চালায়।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, একদল বিক্ষোভকারী একটি সুপারমার্কেট, অফিস ও ব্যাংকে ভাঙচুর চালালে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস প্রয়োগ করে পাল্টা জবাব দেয়।

যে বিল নিয়ে বিতর্ক

প্রস্তাবিত বিতর্কিত বিলটির ২৪ নম্বর অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘শারীরিক কিংবা মানসিকভাবে’ ক্ষতিগ্রস্ত করার উদ্দেশ্যে দায়িত্বপালনরত কোনো পুলিশ সদস্যের ছবি প্রকাশ করা আইনত দণ্ডণীয় অপরাধ বলে গণ্য হবে।

ওই অনুচ্ছেদে আরো বলা হয়েছে, এ ধরনের অপরাধের প্রমাণ পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির সর্বাধিক এক বছরের কারাদণ্ড এবং ৫৪ হাজার মার্কিন ডলার জরিমানা করা হবে।

প্রস্তাবিত আইনের সমর্থকেরা বলছেন, বিলটি পাস হলে তা পুলিশকে হয়রানি এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নাজেহাল হওয়া থেকে সুরক্ষা দেবে।

এই খসড়া বিলে অবৈধ কোনো অভিপ্রায় নিয়ে পুলিশের ছবি তোলা নিষিদ্ধ করা হয় তার বিরুদ্ধে শনিবার দেশব্যাপী অন্তত ১০০টি র‌্যালির আয়োজন করা হয়। বিরোধীদের বক্তব্য এতে করে পুলিশের নির্মমতার প্রমাণ করার জন্য গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নষ্ট হবে।

কিছুদিন ধরেই এই খসড়া বিল নিয়ে প্রতিবাদ চলছে। তবে সম্প্রতি তিন শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা বর্ণবিদ্বেষীভাবে একজন কৃষ্ণাঙ্গ সংগীত পরিচালককে হয়রানি ও নির্যাতন করা ভিডিও ফুটেজ প্রকাশিত হওয়ার পরে তা আরো তীব্র হয়।

আইনটি নিয়ে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ জানান, এই আইনের কিছু অংশ পুনঃলিখন করা হবে।

তবে তাতে আশ্বস্ত নয় বিক্ষোভকারীরা। পরে শুক্রবার ম্যাক্রোঁ বলেন, কিছু পুলিশ আছে যারা বিধ্বংসী। তাদের শাস্তিও হওয়া উচিত।


Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

আরও খবর