বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪ | ১০ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ১৮ মহর্‌রম, ১৪৪৬

মূলপাতা খেলা

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকার হৃদয় ভেঙে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারত


স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশের সময় :৩০ জুন, ২০২৪ ১২:১১ : পূর্বাহ্ণ
বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর উদযাপনে মেতে ওঠে ভারতীয়রা। ছবি: সংগৃহীত
Rajnitisangbad Facebook Page

একেই বলে ফাইনাল! শেষ পর্যন্ত সুতোয় দুলছিল ম্যাচ। কোন দল জিতবে তা বলা যাচ্ছিলো না। রোমাঞ্চের পর রোমাঞ্চের পসরা সাজিয়ে শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৭ রানে হারিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হলো ভারত। এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো টি-টোয়েন্টি শিরোপা জিতলো তারা।

২০০৭ সালে প্রথম আসরের শিরোপা জিতেছিল ভারত। ১৭ বছর পর আবার শিরোপা নিজেদের দখলে নিলো দেশটি।

আজ শনিবার বার্বাডোজের ব্রিজটাউনের কেনসিংটন ওভালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসরের ফাইনালে আগে ব্যাট করে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রান করে ভারত। জবাবে ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৬৯ রানে আটকে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

 

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে ভারত। মাত্র ৩৪ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকে ভারত। তবে বিরাট কোহলি ও অক্ষর প্যাটেলের ব্যাটে লড়াইয়ে ফের ভারত। ফিফটি তুলে নেন কোহলি।

কোহলি ও অক্ষরের ব্যাটে ভর করে ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রান সংগ্রহ করে ভারত। কোহলি ৫৯ বলে ৭৬ ও অক্ষর ৩১ বলে ৪৭ রান করেন। প্রোটিয়াদের পক্ষে কেশভ মহারাজ ও এনরিখ নরকিয়া নেন ২টি উইকেট।

১৭৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ১২ রানের মধ্যে জোড়া উইকেট হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ৫ বলে ৪ রান করে আউট হন রেজা হেনড্রিকস ও এইডেন মার্করাম।

এরপর স্টাবসকে সঙ্গে নিয়ে শুরুর ধাক্কা সামাল দেন ডি কক। ৫৮ রানের জুটি গড়েন এই দুই ব্যাটার। তবে দলীয় ৭০ রানে ২১ বলে ২১ রান করে আউট হন স্টাবস।

এরপর ক্রিজে আসা হেনরিখ ক্লাসেনকে নিয়ে ব্যাট করতে থাকেন ডি কক। তবে দলীয় ১০৬ রানে ৩১ বলে ৩৯ রান করে আউট হন ডি কক। তার বিদায়ের পর ক্রিজে আসা ডেভিড মিলারকে সঙ্গে নিয়ে আগ্রাসী ব্যাটিং করতে থাকেন ক্লাসেন।

ভারতীয় বোলারদের ওপর চড়াও হন এই দুই ব্যাটার। মারমুখী ব্যাটিংয়ে ২৩ বলে ফিফটি তুলে নেন ক্লাসেন। তবে দলীয় ১৫১ রানে ২৭ বলে ৫২ রান করে ফিরে যান তিনি।

ক্লাসেনের বিদায়ের পর ক্রিজে এসে সুবিধা করতে পারেননি মার্কো জানসেন। ৪ বলে মাত্র ২ রান করে আউট হন তিনি। জানসেনকে আউট করে ভারতকে জয়ের স্বপ্ন দেখান পেসার জসপ্রীত বুমরাহ।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১৬ রান প্রয়োজন হয় দক্ষিণ আফ্রিকার। প্রথম বলেই সপাটে ব্যাট হাঁকান মিলার। বাউন্ডারি লাইনে অসাধারণ এক ক্যাচে মিলারকে সাজঘরে ফেরান সূর্যকুমার। দলীয় ১৬১ রানে ১৭ বলে ২১ রান করে আউট হন মিলার।

এরপর কাগিসো বারাদাকে আউট করে ভারতের জয় নিশ্চিত করেন হার্দিক পান্ডিয়া। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৬৯ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হয় দক্ষিণ আফ্রিকা। ভারতের পক্ষে হার্দিক পান্ডিয়া নেন ৩টি উইকেট।

মন্তব্য করুন
Rajnitisangbad Youtube


আরও খবর