সোমবার, ৪ জুলাই, ২০২২ | ২০ আষাঢ়, ১৪২৯ | ৪ জিলহজ, ১৪৪৩

মূলপাতা আঞ্চলিক রাজনীতি

‘যখন যা প্রয়োজন আমরা সময়মতো করবো’, কী বার্তা দিলেন আমীর খসরু?


রাজনীতি সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশের সময় :১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ৩:০০ : অপরাহ্ণ

সরকারের বিরুদ্ধে দেশব্যাপী কর্মসূচি শুরু হয়ে গেছে জানিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ‘বাংলাদেশের জনগণ সবসময় নিজের পথ বেছে নিয়েছে। ১৯৭১ সালে নিয়েছে, ভাষা আন্দোলনের সময় নিয়েছে, এরশাদের বিরুদ্ধে নিয়েছে, ওয়ান-ইলেভেনের সময়ও নিয়েছে। ওয়ান-ইলেভেনে যারা ছিল, জনগণ যখন সংগঠিত হয়ে আন্দোলন শুরুর প্রস্ততি নিচ্ছিল, তখন তারা লেজ গুটিয়ে পালিয়েছিল। জনগণ এই সরকারের বিরুদ্ধেও পথ বেছে নেবে। জেলায় জেলায় কর্মসূচি শুরু করে দিয়েছি। যখন যা প্রয়োজন আমরা সময়মতো করব।’

আজ (১৯ ফেব্রুয়ারি) শুক্রবার সকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীর মুক্তির দাবিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

আসলাম চৌধুরী চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক। কিন্তু এই সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেননি উত্তর জেলা বিএনপির বর্তমান আহ্বায়ক গোলাম আকবর খোন্দকার। বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য ও উত্তর জেলার নেতা মীর হেলালও অংশ নেননি। তারা গত ১৫ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম ক্লাবে বিএনপির একটি সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিয়েছিলেন। এর আগের দিন নাসিমন ভবন প্রাঙ্গণে উত্তর জেলা বিএনপির এক বিক্ষোভ সমাবেশেও অংশ নেন তারা। এই দুই বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীর বিরোধী হিসেবে পরিচিত।

সংবাদ সম্মেলনে আল জাজিরার প্রতিবেদন প্রসঙ্গে সাবেক মন্ত্রী আমীর খসরু অভিযোগ করে বলেন, ‘রাষ্ট্রীয় সংস্থা ব্যবহার করে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় টিকে থাকার যে তথ্য কাতার ভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরা প্রচার করেছে, তার কোনো পাল্টা উত্তর সরকার দিতে পারছে না। আল জাজিরার প্রতিবেদন নিয়ে সরকারের কাছে কোনো উত্তর না থাকায় বিএনপি-জামায়াতকে দায়ী করা হচ্ছে, যা তাদের পুরোনো স্বভাব।’

বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, ‘রাজনৈতিক দল আর রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াই এক না। আমরা তো কোনো রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছি না, আমাদের তো রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হচ্ছে।’

দেশে আইনের শাসন না থাকায় অপশাসন চলছে দাবি করে আমীর খসরু বলেন, ‘বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আসলাম চৌধুরীকে ছয় বছর ধরে আটক করে রাখা হয়েছে। আটকের ছয় মাসের পর থেকে এখন পর্যন্ত শতাধিক মামলা হয়েছে তার বিরুদ্ধে। সর্বশেষ আট বছর আগের শাহবাগের একটি ঘটনার মামলায় আসলাম চৌধুরীকে রিমান্ডে নিয়েছে।’

তিনি হুঁশিয়ার করে বলেন, ‘যারা আসলাম চৌধুরীকে মামলা দিয়ে, আদালতে সময়ের আবেদন করে, নানা কৌশলে জেলে রাখছেন, তারা এই প্রক্রিয়া থেকে সরে আসুন। আসলাম চৌধুরীকে নিয়ে যা হচ্ছে, আল জাজিরার মতো বিশ্বের সব জায়গা থেকে একদিন সেটা খবর হয়ে উঠে আসবে। সেদিন আপনাদের জবাবদিহি করতে হবে। সুতরাং তার নাগরিক অধিকার ফিরিয়ে দিন। তাকে মুক্তি দিন।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, সাবেক মন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান, সদস্য সচিব মোস্তাক আহম্মেদ খান, মহানগর বিএনপি নেতা এম এ আজিজ, মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, এসএম সাইফুল আলম, কাজী বেলাল উদ্দিন, উত্তর জেলা বিএনপি নেতা চাকসু ভিপি নাজিম উদ্দিন, অধ্যাপক ইউনুছ চৌধুরী, নুরুল আমিন, নুরুল আমিন চেয়ারম্যান, ডাক্তার খুরশিদ জামিল, ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, সেকান্দর চৌধুরী, কাজী সালাউদ্দিন, কুতুব উদ্দিন বাহার, অ্যাডভোকেট আবু তাহের, মহানগর বিএনপি নেতা ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, মোহাম্মদ শাহ আলম, আনোয়ার হোসেন লিপু, মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী মঞ্জু প্রমুখ।


Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

আরও খবর