বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২২ | ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ | ১২ জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪

মূলপাতা আঞ্চলিক রাজনীতি

ওবায়দুল কাদেরকে ‘আমার নেতা’ সম্বোধন করে ক্ষমা চাইলেন এমপি একরামুল


রাজনীতি সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশের সময় :২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১০:৩০ : অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কটূক্তি করে শেষ পর্যন্ত ক্ষমা চাইলেন নোয়াখালী-৪ (সদর ও সুবর্ণচর) আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ একরামুল করিম চৌধুরী। সোমবার (২৫ জানুয়ারি) রাতে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের টক শোতে তিনি সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে ‘আমার নেতা’ সম্বোধন করে নোয়াখালীবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন।

টকশোতে একরামুল করিম চৌধুরী বলেন, আমি আমার নেতা ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে যে মন্তব্য করেছিলাম তার জন্য ক্ষমা চাইছি। টেলিভিশনের মাধ্যমে পুরো নোয়াখালীবাসীর কাছে ক্ষমা চাইছি।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১২টা ১০ মিনিটে একরামুল করিম নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক আইডি থেকে লাইভে এসে ওবায়দুল কাদেরের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, ‘আমি কথা বললে তো আর মির্জা কাদেরের বিরুদ্ধে কথা বলব না। আমি কথা বলব ওবায়দুল কাদেরের বিরুদ্ধে। একটা রাজাকার পরিবারের লোক এই পর্যায়ে এসেছে, তার ভাইকে শাসন করতে পারে না। এগুলো নিয়ে আমি আগামী কয়েক দিনের মধ্যে কথা বলব। আমার যদি জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি না আসে। তাহলে আমি এটা নিয়ে শুরু করব।’

২৭ সেকেন্ডের ভিডিওটি কিছুক্ষণ পর সরিয়ে নিলেও রাতেই সেটা ভাইরাল হয়ে যায়।

ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কটূক্তি করার প্রতিবাদে নোয়াখালীতে প্রতিবাদের ঝড় উঠে। নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। তারা একরামুল করিম চৌধুরীর কুশপুত্তলিকা দাহ করেন।

প্রতিবাদ সমাবেশে ওবায়দুল কাদেরের ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেন, নোয়াখালীর সংসদ সদস্য, মাতাল একরামুল করিম চৌধুরী আমাদের প্রিয় নেতা ওবায়দুল কাদের সাহেবকে রাজাকারের পরিবারের সদস্য বলায় আজকে পুরো কোম্পানীগঞ্জ উত্তাল। যদি তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হয়, যদি তাকে দল থেকে বহিষ্কার না করা হয়, যদি নোয়াখালীর অপরাজনীতি বন্ধ করা না হয়, যদি প্রশাসনে তার খবরদারি বন্ধ না করা হয়, তাহলে আমাদের আন্দোলন চলবে।


আরও খবর